এসএসসির ব্যবহারিক পরীক্ষা নিয়ে জরুরি নির্দেশনা

 
এসএসসির ব্যবহারিক পরীক্ষা নিয়ে জরুরি নির্দেশনা

এসএসসির ব্যবহারিক পরীক্ষা নিয়ে জরুরি নির্দেশনা

বহুল প্রতিক্ষীত চলতি বছরের এসএসসির লিখিত পরীক্ষা শেষ হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১০ অক্টোবর থেকে শুরু হবে ব্যবহারিক পরীক্ষা। চলবে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত। ২৫ নম্বরের ব্যবহারিক পরীক্ষার জন্য শিক্ষার্থীরা সময় পাবে দুই ঘণ্টা।

ব্যবহারিক পরীক্ষা নেওয়ার জন্য পরীক্ষকদের প্রতি জরুরি নির্দেশনা জারি করেছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

উচ্চতর গণিত ব্যবহারিক পরীক্ষায় মোট নম্বর ২৫। নির্দেশনায় উচ্চতর গণিতের ব্যবহারিক পরীক্ষা নিয়ে বলা হয়েছে, লটারির মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে পরীক্ষণ বণ্টন করতে হবে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে দুটি পরীক্ষণ করতে হবে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থী পরীক্ষণের জন্য সর্বাধিক দুইবার লটারির সুযোগ পাবে।


উচ্চতর গণিত পরীক্ষায় পরিকল্পনা প্রণয়নে নম্বর হবে ২, সঠিক প্রক্রিয়া অনুসরণে ৩ নম্বর, লেখচিত্র অঙ্কন ও উপাত্ত বিশ্লেষণে ৩ নম্বর, ব্যাখ্যাসহ ফল উপস্থাপনে ২ নম্বর থাকবে। আর মৌখিক অভীক্ষায় মৌখিক প্রশ্ন পাঠ্যসূচির মধ্যে হবে। পরীক্ষণের ওপর-ও প্রশ্ন করা যাবে; নম্বর থাকবে ৫।

Adolescence Paragraph with bangla meaning class 1-12

বোর্ড জানিয়েছে, কৃষি শিক্ষার ব্যবহারিক পরীক্ষায় পূর্ণমান হবে ২৫। পরীক্ষার্থীদের যেকোনো একটি পরীক্ষণ করতে হবে। এতে ১৫ নম্বর থাকবে। আর ব্যবহারিক খাতায় ৫ নম্বর ও মৌখিক পরীক্ষায় ৫ নম্বর থাকবে।


২৫ নম্বরের ব্যবহারিক পরীক্ষা নেওয়া হবে পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ে। এ পরীক্ষার পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নে উল্লেখিত যেকোনো একটি পরীক্ষণ সম্পন্ন করতে হবে। শিক্ষকদের উপস্থিতিতে লটারির মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষণ বণ্টন করা হবে। একজন পরীক্ষার্থী সর্বোচ্চ দুইবার লটারির সুযোগ পাবেন।


পরীক্ষায় তত্ত্বে ৩ নম্বর; তথ্য সংগ্রহ, ছক ও চিত্রে ৬ নম্বর; হিসাবে ৩ নম্বর; ফলাফলে ১ নম্বর আর সতর্কতায় ২ নম্বর থাকবে। ব্যবহারিক নোট বুকে ৫ নম্বর থাকবে। কাজে পরিচ্ছন্নতা ও শিক্ষকের নিয়মিত স্বাক্ষরের ভিত্তিতে ব্যবহারিক নোট বুকে শিক্ষার্থীদের নম্বর দেওয়া হবে।আর মৌখিক পরীক্ষায় নম্বর হবে ৫। এতে পরীক্ষকরা পরীক্ষার্থীর পরীক্ষণের ওপর জ্ঞান যাচাইয়ে প্রাধান্য দেবেন। তবে, পাঠ্যসূচির অন্তর্ভুক্ত যেকোনো প্রশ্ন করা যাবে। 


রসায়ন বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে ২৫ নম্বরে। পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নে উল্লেখিত যেকোনো একটি পরীক্ষণ সম্পন্ন করতে হবে। শিক্ষকদের উপস্থিতিতে লটারির মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষণ বণ্টন করা হবে। একজন পরীক্ষার্থী সর্বোচ্চ দুইবার লটারির সুযোগ পাবেন। 


এতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও রাসায়নিক দ্রব্যাদির নাম ও তত্ত্বে ৩ নম্বর থাকবে। যন্ত্রপাতি সাজানো, যথাযথ ব্যবহার ও কার্যপ্রণালীর জন্য ৪ নম্বর, ধর্ম পরীক্ষা ও ফল লিখনে ৬ নম্বর এবং পরীক্ষার পরিচ্ছন্নতা ও সতর্কতায় ২ নম্বর থাকবে। ব্যবহারিক নোট বুকে কাজের পরিমাপ ও পরিচ্ছন্নতা ও শিক্ষকের নিয়মিত স্বাক্ষরের ওপর ভিত্তিতে নম্বর দেয়া হবে। নোটবুকে নম্বর হবে ৫। আর মৌখিক পরীক্ষা হবে ৫ নম্বরে। মৌখিক পরীক্ষার পরীক্ষকরা পরীক্ষণের ওপর জ্ঞান যাচাইয়ে প্রাধান্য দেবেন। তবে, পাঠ্যসূচির অন্তর্গত যেকোনো প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা যাবে।

জীববিজ্ঞান বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষায় পূর্ণমান হবে ২৫ নম্বর। এতে পরীক্ষণের নামে ১ নম্বর, উপকরণ ও যন্ত্রপাতির নামে ১ নম্বর, কার্যপদ্ধতি ও প্রদর্শনে ৩ নম্বর, চিত্রাঙ্কনে ৩ নম্বর, চিত্র চিহ্নিতকরণে ২ নম্বর, পর্যবেক্ষণে ২ নম্বর, সিদ্ধান্তে ২ নম্বর এবং সতর্কতায় ১ নম্বর থাকবে। এছাড়া উপস্থাপনকৃত পরীক্ষণটির ফল ব্যাখ্যায় ৪ নম্বর, মৌখিক পরীক্ষা ৪ নম্বর এবং ব্যবহারিক খাতা ও শিটে ২ নম্বর থাকবে। 

চারু ও কারুকলায় ব্যবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী দৃশ্য ও নকশা অঙ্কনের জন্য রং (জল রং ছাড়া), জ্যামিতি বক্স, স্কেল, পেন্সিল, ইরেজার ইত্যাদি নিজে নিয়ে আসবে। হল কর্তৃপক্ষ ব্যবহারিক উত্তরপত্র সরবরাহ করবেন। পরীক্ষার্থীরা ওই ব্যবহারিক উত্তরপত্রে দৃশ্য ও নকশা অঙ্কন করবে। 

সংগীত বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষকরা প্রশ্নপত্র অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করবেন। পরীক্ষার্থীর গায়নরীতি, সুর, তাল, লয়, উচ্চারণ ও বাণীর প্রতি লক্ষ্য রেখে নম্বর দেবেন। 

গার্হস্থ্য বিজ্ঞান বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীকে প্রয়োজনীয় উপকরণ কলম, পেন্সিল, স্কেল, রাবার, বোর্ড, পেপার ও আলপিন আনতে হবে। আর প্রয়োজনীয় উপকরণ হিসেবে আরও লাগবে ডিম, দুধ, চিনি, ভ্যানিলা ও এসেন্স।

সুত্র: ঢাকা পোস্ট


বাংলা ২য় পত্রের সারাংশ এবং সারমর্ম :

কোন মন্তব্য নেই

Be alert before spamming comments.

Blogger দ্বারা পরিচালিত.