অনেকেই জানেন না ফাতেহা-ই-ইয়াজদহম কী ?

Many people don't know what is Fateha-e-Yazdham


প্রতি বছর ১১ রবিউস সানি ফাতেহা-ই-ইয়াজদহম পালন করা হয়। কিন্তু অনেকেই জানেন না ফাতেহা-ই-ইয়াজদহম কী।

ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহাম হলো বড় পীর হজরত আবদুল কাদির জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহুর এর ওফাত দিবস। হিজরি ৫৬১ সনের ১১ রবিউস সানি তিনি ইন্তিকাল করেন।

‘ইয়াজদাহম’ ফারসি শব্দ, যার অর্থ এগারো। ফাতিহা-ই-ইয়াজদাহম বলতে এগারো তম দিনকে বোঝায়। এই ফাতিহা-ই-ইয়াজদাহম আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু এর স্মরণে পালিত হয়।

ইসলামের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ধর্মগুরু হজরত আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু-এর নাম প্রত্যেক মুসলমানের কাছে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণীয়। মুসলমানদের ধর্মীয় জীবনে তার প্রভাব অপরিসীম। তার জীবনী ও কীর্তিগাথা মুসলমানদের হৃদয়ে চিরদিন জীবন্ত হয়ে থাকবে।

একজন আদর্শ পুরুষ হিসেবে বিশ্ব জগতে মুসলমানদের কাছে হজরত বড়পীর আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু-কে পরম ভক্তি, শ্রদ্ধার সঙ্গে চিরকাল স্মরণ করবে। পৃথিবীতে আল্লাহ পাকের প্রেরিত নবী-পয়গম্বর এসেছেন ১ লাখ বা ২ লাখ ২৪ হাজার।

অন্যদিকে কামেল পীর, অলি, দরবেশ, ফকির যে কত এসেছেন তার ইয়ত্তা নেই। কিন্তু সব পীর, ফকির, দরবেশ, অলির সেরা ছিলেন হজরত আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু মহানবী হজরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর ওফাতের প্রায় ৫০০ বছর পর জন্মগ্রহণ করেন। তখন ইসলাম ধর্ম এক নাজুক অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছিল।

পবিত্র কুরআন ও আল্লাহর রাসুল মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর আদর্শ ভুলে মানুষ বিপথে পা বাড়িয়েছিল, ঠিক এমনি সময় হজরত বড়পীর ইসলামের পথে মানুষকে ডাক দিয়েছিলেন।

হজরত আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু-এর বাবার নাম সৈয়দ আবু সালেহ এবং মায়ের নাম বিবি ফাতেমা। হজরত আবদুল কাদের জিলানি রাদিয়াল্লাহু আনহু ৪৭০ হিজরিতে ইরানের জিলান শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বাগদাদের মহান পীর হজরত আবু সাঈদ ইবনে আলী ইবনে হুসাইন মাখরুমির রাদিয়াল্লাহু আনহু কাছে মারেফাতের জ্ঞানে পূর্ণতা লাভ করেন এবং খেলাফত প্রাপ্ত হন।

ইয়াজদহম পালন

এ কথা অনস্বীকার্য হজরত আবদুল কাদির জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহু এর অবদান বিশ্বে অনন্য। তিনি মুসলিমদের কাছে চির স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তবে তার ওফাত উপলক্ষ্যে ঘটা করে দিনটি পালন করাকে উলামায়ে কেরাম জায়েজ মনে করেন এছাড়া আজ থেকে শত শত বছর আগে যারা এই দেশে ইসলাম নিয়ে এসেছেন উনারাও ফাতেহায়ে ইয়াজদাহম তথা গেয়ারভী শরীফ পালন করেছেন। 

এছাড়াও এ দিনে দেশ ও জাতির কল্যানের জন্য দোয়া মুনাজাত ও গাউসে পাক হযরত আব্দুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহুর জীবনী আলোচনা করা উচিত উনার আদর্শ ছড়িয়ে দেওয়া উচিত । যাতে করে পরবর্তী প্রজন্ম পূর্ববর্তী আকাবেরদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে । আল্লাহ পাক আমাদেরকে হজরত আবদুল কাদের জিলানী রাদিয়াল্লাহু আনহুর এর জীবন ও কর্ম সব সময় স্মরণ রাখার তওফিক দিন।

কোন মন্তব্য নেই

Be alert before spamming comments.

Blogger দ্বারা পরিচালিত.