রাবির প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। পরীক্ষা আগামী ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ৬ অক্টোবর শেষ হবে। 

সোমবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর আবদুস সালাম। 


রেজিস্ট্রার জানান, তিন দিনে রাবির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৪ অক্টোবর তথা প্রথম দিন সোমবার ‘সি’ ইউনিটের বিজ্ঞান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তিনটি শিফটে এই ইউনিটের পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রথম শিফটে পরীক্ষা সকাল সাড়ে ৯টা শুরু হয়ে শেষ হবে সাড়ে ১০টায়। এই শিফটে বিজ্ঞান গ্রুপ ১-এর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করবে।

শিক্ষার্থী, চাকুরিপ্রত্যাশী কিংবা চাকুরিজীবী ইংরেজি গ্রামার নিয়ে সমস্যায় ভুগছেন অনেকেই।

এর প্রধান কারণই হলো না বুঝে Rule মুখস্থ করা। এই সমস্যার সমাধানে টেন মিনিট স্কুল নিয়ে এলো

'English Grammar Crash Course'। এখন English Grammar শিখুন বুঝে বুঝে বাস্তবিক

সব উদাহণের মাধ্যমে। ⚡


English Grammar কোর্সটি আপনাকে যেভাবে সাহায্য করবে:

💥 Rule মুখস্থের প্রতি নির্ভরতা কমিয়ে বুঝে বুঝে Grammar শেখাবে

💥 Real Life উদাহরণের মাধ্যমে Grammar শেখা হবে আরও মজার

💥 বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার English এর জন্য প্রস্তুত করবে।

💥 চাকরির পরীক্ষার English Grammar এর সমস্যা সমাধান করবে।

💥 যেসব টপিকে ভুল বেশি হয় সেগুলোতে করে তুলবে দক্ষ







দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষা দুপুর ১২টায় শুরু হয়ে শেষ হবে ১টায়। এই শিফটের বিজ্ঞানের গ্রুপ ২-এর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করবেন। তৃতীয় শিফটের পরীক্ষা বিকাল ৩টায় শুরু হয়ে শেষ হবে ৪টায়। এই শিফটে বিজ্ঞান গ্রুপ ৩-এর শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় বসবেন।


এদিকে ৫ অক্টোবর ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষাও তিনটি শিফটে অনুষ্ঠিত হবে। বিজ্ঞান, মানবিক, বাণিজ্য সব বিভাগের শিক্ষার্থীরা এ ইউনিটে পরীক্ষা দিতে পারবেন। এ ছাড়া আগামী ৬ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রাবির ভর্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে http://admission.ru.ac.bd এই ওয়েবসাইটে। 


প্রসঙ্গত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এবার ভর্তি পরীক্ষা শুধু বহুনির্বাচনী পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে। ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ৮০ বহুনির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে— সময় এক ঘণ্টা। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১.২৫। প্রতিটি ভুল উত্তরের ০.২০ করে নম্বর কাটা হবে। অর্থাৎ ৫টি ভুল উত্তরের জন্য ১ নম্বর কাটা যাবে। পরীক্ষায় ন্যূনতম পাস নম্বর ৪০। পরীক্ষার হলে কোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেমন— মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, হেডফোন, মেমোরিযুক্ত ঘড়ি ইত্যাদি সঙ্গে আনা যাবে না।

সুত্র: যুগান্তর

Post a Comment

Previous Post Next Post