আমরা আন্দালুস হিসেবে যে দেশকে চিনি-জানি | ইসলামী ইতিহাস

আমরা আন্দালুস হিসেবে যে দেশকে চিনি-জানি 


আমরা আন্দালুস হিসেবে যে দেশকে চিনি-জানি, সেটা শুধু আজকের স্পেনই নয়, বর্তমানের পর্তুগালও আন্দালুসের অন্তুর্ভূক্ত ছিল। পুরো অঞ্চলটাকেই বলা হতো: আইবেরীয় উপদ্বীপ। আয়তন প্রায় ছয় লক্ষ বর্গকিলোমিটার।

আইবেরিয় উপদ্বীপ ইউরোপের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত। অনেকটা ত্রিভূজাকৃতির। পূর্বদিকে ক্রমশ সংকীর্ণ হতে হতে কোণের সৃষ্টি হয়েছে। পশ্চিম দিকে ক্রমশ প্রশস্ত।

মরক্কো থেকে বার কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত। দুই দেশের মধ্যে ছোট্ট একটা প্রাণালী। জিব্রাল্টার প্রণালী। যার মূল উচ্চারণ হলো: জাবালুত তারিক। তারিক বিন যিয়াদ (রহ.) নামে।

পিরেনিজ পর্বতমালা আন্দালুস এবং ফ্রান্সের মাঝে অন্তরায় হয়ে আছে। এই পর্বতশ্রেণী পূর্ব-পশ্চিমে প্রায় তিনশত মাইল বিস্তৃত।

আন্দালুসের ভূমধ্যসাগর পূর্ব এবং দক্ষিণ পূর্ব দিক থেকে বেষ্টন করে আছে। দক্ষিণ পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিম দিকে বেষ্টন করে আছে আটলান্টিক মহাসাগর। অর্থাৎ তিনদিক থেকেই আন্দালুস পানি দিয়ে বেষ্টিত। আরব ঐতিহাসিকগণ এজন্য আন্দালুসকে জাযীরায়ে আন্দালুস বলতো।


পিরেনিজ পর্বতমালার কারণে, ওপর থেকে দেখলে মনে হয়, আন্দালুস ইউরোপ থেকে মুখ ফিরিয়ে আছে আর মরক্কোর দিকে মুখ করে আছে। এজন্য আরব ভূগোগবিদগন আন্দালুসকে আফ্রিকা মহাদেশের একটি বর্ধিতাংশ বলেই ধরে এসেছেন। তদুপরি, আন্দালুসের ভৈৗগলিক অবকাঠামো, প্রাণীবৈচিত্র্য, উদ্ভিদরাজি বাহ্যিকভাবে অনেকটাই আফ্রিকার মতো।

Post a Comment

Previous Post Next Post