আতর বা সুগন্ধি ব্যবহারের সঠিক নিয়ম

সুগন্ধি ব্যাবহারের সঠিক নিয়ম



সুগন্ধি পছন্দ করে না এমন মানুষ পাওয়া যা না।কেননা সুগন্ধি ব্যক্তিত্বেরই একটি অংশ। আর তাই আপনি যত ভালোভাবে সুগন্ধি ব্যবহারের নিয়ম কানুন জানবেন ততই তা আপনার ব্যক্তিত্তকে ফুটিয়ে তুলবে। আর তা না হলে সুগন্ধির ভুলভাল ব্যবহারে অন্যের সামনে অস্বস্তিতে পরতে পারেন। অনেকেই হয়তো আছেন, যারা সুগন্ধির খুব বড় ফ্যান ।

সুগন্ধি নিয়ে দুশ্চিন্তা এড়াতে ও এর সঠিক ব্যাবহার

১. নিজের পছন্দ জানুন

সুগন্ধি নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিজের ইছাকে প্রাধান্য দিন।নিজেকে প্রশ্ন করুন, “আপনি কি ধরণের সুগন্ধি ভালবাসেন ?” পছন্দ অনুযায়ী সুগন্ধির ব্র্যান্ডকে বেছে নিন, নিজে যেটা ব্যবহার করে তৃপ্তি পাবেন বলে মনে করেন, সেটিই বেছে নিন।

২. নিজের ত্বকের ওপর পরীক্ষা করুন

আমাদের প্রত্যেকের দেহই আলাদা আলাদা রসায়নে তৈরি। আর ঠিক সে কারণেই অন্য কারো দেহে যে গন্ধ ভাল লাগে, আপনার দেহে তা নাও লাগতে পারে। কাজেই সুগন্ধি কেনার আগে নিজের ত্বকের ওপর পরীক্ষা করুন ।

৩. চুলে সুগন্ধি এড়িয়ে চলুন

বাজারের বেশিরভাগ সুগন্ধিতেই অ্যালকোহল থাকে, আর অ্যালকোহল চুলকে শুষ্ক করে তোলে। যদি আপনি চুলে সুগন্ধি মাখতে চান, তাহলে চুলে ভাল করে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনিং করে নিন। এরপর দু’হাতে সুগন্ধি মেখে তালি দিন, যাতে অ্যালকোহলটুকু হাতের তাপে পুড়ে উধাও হয়ে যায় । এরপর চুলের ভেতর আঙ্গুল চালিয়ে তা মেখে নিন।

৪. কাপড়ে সুগন্ধি লাগাবেন না

আমরা সাধারণত জামা-কাপড়ের ওপরেই সুগন্ধি লাগিয়ে নিই,ফলে একটু পরই এ Spraying-Perfumeগন্ধ মিলিয়ে যায় তা যত ভাল ব্র্যান্ডই হোক না কেন।সুগন্ধি মাখার নিয়ম হল, আপনার চারপাশে স্প্রে করে কিছুক্ষণ সেখানে দাঁড়িয়ে থাকুন, সুরভি আপনার গায়ে মেখে থাকবে।তাছাড়া হাতের কবজি, কানের লতি ও ঘাড়েও একটু স্প্রে করে নিন।তাহলে গন্ধটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হবে।

৫. প্রলেপ দিন

দিনভর সুগন্ধ ধরে রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় হল প্রলেপন। অর্থাৎ, গোসলে সুগন্ধি বডি-ওয়াশ ব্যবহার করুন, বডি-লোশান অথবা বডি-অয়েল দিন সৌরভ আরেকটু বাড়ানোর জন্য ও সেই সাথে আর্দ্রতার জন্য।এরপর আপনার পালস-পয়েন্টগুলোতেও একটু বডি-অয়েল মাখান এবং ফিনিশিং টাচ হিসেবে সুগন্ধি লাগিয়ে নিন।ব্যস, সারাদিনের জন্য আপনি পেয়ে গেলেন মনমত সুবাস আর সতেজতা।


Buy Your Favorite Attar From Daraz Online Shop



৬. অতিরিক্ত সুগন্ধি কে না বলুন

অতিরক্ত সুগন্ধি মাখার অভ্যাস পরিত্যাগ করুন।কারণ, আপনার সুগন্ধির ঝাঁঝ অন্যের বিরক্তির কারণের সাথে  তা আপনার ব্যক্তিত্বের জন্যও ক্ষতিকর।তাই মাথায় রাখবেন কখন, কোথায় এবং কি উপলক্ষে আপনি কোন সুগন্ধি ব্যাবহার করছেন।

৭. সুগন্ধি পরিবরতন করুন

সবসময় একই ধরণের সুগন্ধি ব্যবহার না করে একটু পরিবরতন কররে নিন। যেমন হালকা গন্ধের সুগন্ধিগুলোকে দিনের বেলায় এবং কড়া ও ঝাঁঝালো সুগন্ধি রাতে ব্যবহার করতে পারেন অথবা বদলে নিতে পারেন ঋতু ও আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে।যা আপনাকে দিতে পারে ভিন্ন সতেজতার আমেজ। মুড বুঝে সুগন্ধি ব্যবহার করুন আর দেখুন আপনার প্রতি মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন।

1 Comment

Post a Comment

Previous Post Next Post